সম্পূর্ন জানতে দেখতে ক্লিক করুন
ঘটনা-দুর্ঘটনা

সেশন ফি ও ফরম পূরণের টাকা না দেওয়ায় নতুন বই দেওয়া হয়নি নওগাঁর রাজিফাকে

সেশন ফি ও ফরম পূরণের টাকা না দেওয়ায় নতুন বই দেওয়া হয়নি নওগাঁর রাজিফাকে

বিশেষ প্রতিনিধি নওগাঁ,
নতুন বছরের প্রথম দিনে শিক্ষার্থীদের নতুন বই দেওয়ার প্রতিশ্রুতি সরকারের। কিন্তু সেশন ফি ও ফরম পূরণের টাকা না দেওয়ায় নতুন বই দেওয়া হয়নি নওগাঁর রাজিফাকে। বই না পেয়ে কান্না করতে করতে বাড়ি ফিরতে হয়েছে রাজিফাকে। কিন্তু বই দেওয়ার সময় সেশন ফি বা ফরম পূরণের টাকা জমা দেওয়ার কোনো নিয়ম নাই কোনো প্রতিষ্ঠানে বলছেন সংশ্লিষ্টরা।
নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার রাইগা উচ্চবিদ্যালয়ে পহেলা জানুয়ারি বই বিতরণের সময় টাকা নেওয়ার অভিযোগ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের। শ্রেণি অনুযায়ী বছরের প্রথম দিনে প্রতি শিক্ষার্থীর কাছে থেকে ৫০০ থেকে ৭৫০ টাকা নেওয়ার অভিযোগ করেন তারা। যারা দিতে পারেনি তাদের বই না দেওয়ার অভিযোগ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের।মহাদেবপুর উপজেলার রাইগা ইউনিয়নের মাতাজী হাট এলাকায় দিনমজুর মাকে নিয়ে বসবাস করেন রাইগা উচ্চবিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী মোছা. রাজিফা আখতার। তার মা শাহিদা আক্তার খাবার হোটেলে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ করে মেয়েকে লেখাপড়া করাচ্ছেন।
রাজিফা জানায়, শিক্ষকরা তাকে সেশন ফির টাকা ছাড়া এ বছরের নতুন বই দেয়নি। মাকে নিয়ে দ্বিতীয় দিনের মতো (২ জানুয়ারি) স্কুলে গিয়েও টাকা দিতে না পারায় তাকে নতুন বই দেওয়া হয়নি।
‘সেশন ফি’ না দিতে পারায় নতুন বই পায়নি রাজিফা
তার মা শাহিদা আক্তার জানায়, বছরের প্রথম দিন শেখ হাসিনা বিনামূল্যে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ করার ঘোষণা দিয়েছেন। সেখানে আমার মেয়ে টাকা না দিতে পারায় বছরের প্রথম দিন বই না পেয়ে কান্না করতে করতে বাড়িতে আসে। বছরের প্রথম দিন সেশন ফি’র টাকা না দেওয়ায় মেয়েকে বই না দেওয়াটা তিনি অন্যায় মনে করেন।
এদিকে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম শাহ শিক্ষার্থীদের কাছে থেকে টাকা নেওয়ার কথা অস্বীকার করলেও বই না-দেওয়ার কারণ জানাতে পারেননি তিনি। অন্যদিকে বিদ্যালয়টির সভাপতি অসিত চন্দ্র ঘটনাটির সঠিক তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানান।
এদিকে অভিভাবক, শিক্ষার্থী এবং এলাকাবাসীর মধ্যে ঘটনাটি জানাজানি হলে উত্তেজিত জনতা স্কুল কর্তৃপক্ষের প্রতি তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানান। ঘটনাটি সত্য বলে শিক্ষার্থীরা জানান, টাকা ছাড়া তাদের নতুন বই দেওয়া হয়নি । তাই তারা বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে এসে বিদ্যালয়টি থেকে নতুন বই সংগ্রহ করেছে।এ দিকে বিষয়টি নিয়ে নওগাঁ জেলা শিক্ষা অফিসার লুৎফর রহমান জানান, সেশন ফি এবং ফরম পূরণের সঙ্গে বই বিতরণের কোনো সম্পর্ক নেই। সরকার নির্ধারিত রেটে সেশন ফি নিয়ম আছে তবে বইকে কেন্দ্র করে নয়। যদি প্রধান শিক্ষক নতুন বই বিতরণ নিয়ে সেশন ফি এবং ফরম পূরণের টাকা না পেয়ে শিক্ষার্থীদের বই না দেন, তবে জেলা শিক্ষা বিভাগ তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানান তিনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button