বাংলাদেশ

রাজশাহীতে প্রচার মিছিল জনসমুদ্রে পরিণত নৌকার পক্ষে মাঠে নামলো ১৪ দল

রাজশাহীতে প্রচার মিছিল জনসমুদ্রে পরিণত নৌকার পক্ষে মাঠে নামলো ১৪ দল

রাজশাহী, প্রতিনিধি:

 

রাজশাহী-২ আসনে শেখ হাসিনার মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ফজলে হোসেন বাদশার পক্ষে ভোটের মাঠে নেমেছে রাজশাহী ১৪ দল।

এ লক্ষ্যে শনিবার বিকালে নগরীর আলুপট্টি মোড় থেকে একটি বিশাল প্রচার মিছিল বের করা হয়। শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মিছিলটি সাহেব বাজার জিরোপয়েন্টে গিয়ে পথসভায় মিলিত হয়।

মিছিলে মহানগর আওয়ামী লীগ, মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টিসহ ১৪ দলের হাজারো নেতাকর্মীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন।

নৌকার পক্ষের প্রচার মিছিলে নেতৃত্ব দিয়েছেন রাজশাহী -২ আসনে নৌকার প্রার্থী, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের অন্যতম নেতা ফজলে হোসেন বাদশা ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার।

পথসভায় দেয়া বক্তৃতায় নৌকার প্রার্থী ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, রাজশাহীর মানুষ ঐক্যবদ্ধভাবে শেখ হাসিনার নৌকার পক্ষে মাঠে নেমেছেন। ১৪ দলের নেতাকর্মীদের পদচারণায় আজকের প্রচার মিছিল জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে।

এই মিছিল প্রমাণ করে, অতিতের যেকোনো সময়ের তুলনায় ১৪ দল এখানে অত্যন্ত শক্তিশালী। আমরা প্রমাণ করতে পেরেছি, রাজশাহীর মানুষ জননেত্রী শেখ হাসিনা ও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির সঙ্গেই আছে। প্রতিটি পাড়া মহল্লায় ১৪ দলের নেতাকর্মীসহ সাধারণ জনগণ নৌকার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ হয়েছে।

আমরা উপলব্ধি করতে পারছি চতুর্থবারের মতো এই আসনে নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত। নৌকার জয় নিশ্চিত করার লক্ষ্যে দলীয় নেতা কর্মীদের মাঠে নামার নির্দেশ দিয়ে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নৌকা প্রতীকের বাইরে গিয়ে কাজ করার কোনো সুযোগ নেই।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যাকে নৌকা প্রতীক দিয়েছেন, মহানগর আওয়ামী লীগ তার পক্ষেই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবে। শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থী জননেতা ফজলে হোসেন বাদশা রাজশাহী শহরের উন্নয়নে যে অভূতপূর্ব অবদান রেখেছেন; তা অস্বীকারের কোন সুযোগ নেই। আমরা উন্নয়নের পক্ষে, জননেত্রী শেখ হাসিনা ও নৌকার পক্ষে।

আগামী ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে এই আসনে নৌকার জয় নিশ্চিত করার লক্ষ্যে নগর আওয়ামী লীগসহ ১৪ দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবে।

মিছিলে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য ও রাজশাহী মহানগরের সহ-সভাপতি, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মির ইকবাল, সহ-সভাপতি রেজাউল ইসলাম বাবলু, সহ-সভাপতি বদরুজ্জামান খায়ের, মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামানিক দেবু, যুবমৈত্রীর কেন্দ্রীয় সভাপতি তৌহিদুর রহমান, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল হক তোতা, মহানগর সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য সাদরুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, আব্দুল মতিন, নাজমুল করিম অপু, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর ইসতিয়াক আহমেদ লিমন, সাবেক ছাত্রনেতা মঞ্জুর মোরশেদ হাসান চুন্না, মনোয়ার হোসেন সেলিম, জেষ্ঠ আইনজীবী সুশান্ত দাশ, মহানগর আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রবিউল ইসলাম রবি, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মুকিদুজ্জামান জুরাত, উপ-দপ্তর সম্পাদক পংকজ দে, উপ-প্রচার সম্পাদক সিদ্দিক আলম, সদস্য আশরাফ উদ্দিন খান, সৈয়দ মন্তাজ আহমেদ, ইসমাইল হোসেন, মুজিবুর রহমান, মাসুদ আহমেদ, আশীষ তরু দে সরকার অর্পণ, আলিমুল হাসান সজল, খাইরুল বাসার শাহীন, শাহ নেওয়াজ সরকার সেডু, জাতীয় শ্রমিক লীগ রাজশাহী মহানগরের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শরীফ আলী মুনমুন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক জেডু সরকার, রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তাসকিন পারভেজ সাতিল, রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান, রাজশাহী মহানগর কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল গাফফার শামীম, মহানগর ছাত্রমৈত্রীর সভাপতি ওহিদুর রহমান, মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান রিমেল রিগেন, মহানগর ছাত্রমৈত্রীর সাধারণ সম্পাদক বিজয় সরকার প্রমুখ।


Discover more from Bangovumi

Subscribe to get the latest posts to your email.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Discover more from Bangovumi

Subscribe now to keep reading and get access to the full archive.

Continue reading